khabor.com, KHABOR.COM, khabor, news, bangladesh, shongbad, খবর, সংবাদ, বাংলাদেশ, বার্তা, বাংলা

প্রথম গার্ল সামিটে অংশগ্রহণের জন্য প্রধানমন্ত্রী আগামীকাল লন্ডন যাচ্ছেন

0 18

ঢাকা: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা লন্ডনে অনুষ্ঠিতব্য ’প্রথম গার্ল সামিট-২০১৪’তে অংশগ্রহণের জন্য আগামীকাল সকালে যুক্তরাজ্যের রাজধানী লন্ডনের উদ্দেশ্যে ঢাকা ত্যাগ করবেন। ’প্রথম গার্ল সামিটে’ অংশগ্রহণের পেছনে সমাজ থেকে বাল্যবিবাহ দূরীকরণে বাংলাদেশে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকারের দৃপ্ত অঙ্গীকার এবং গৃহিত পদক্ষেপসমূহ আন্তর্জাতিক পরিমন্ডলে তুলে ধরে দেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করার প্রচেষ্টা থাকবে। ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরন এবং ইউনিসেফের নির্বাহী পরিচালক এন্থনি লেক আগামী ২২ জুলাই থেকে লন্ডনে অনুষ্ঠিতব্য প্রথম গার্ল সামিটে যোগদানের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আমন্ত্রণ জানান। আজ পররাষ্ট্রমন্ত্রী এএইচ মাহমুদ আলী পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের এ কথা জানান।

20072014_006_SHEIKH_HASINA

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, যুক্তরাজ্য সরকার এবং ইউনিসেফের যৌথ আয়োজনে প্রথমবারের মত গার্ল সামিট-২০১৪ অনুষ্ঠিত হচ্ছে। মেয়েদের খতনা বা ফিমেল জেনিটাল মিউটিলেশন (এফজিএম) প্রথার বিলোপ সাধন, বাল্যবিবাহ বন্ধ এবং জোর করে বিয়ে দেয়া বন্ধের লক্ষ্যে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে উদ্যোগ গ্রহণই এর অন্যতম লক্ষ্য। এছাড়াও, নারীর বিরুদ্ধে যেকোন প্রকার নির্যাতন,নিরাপদ মাতৃত্ব,কর্মসংস্থান, নারী-পুরুষের বৈষম্য হ্রাস, নারী শিক্ষা এবং নারীদের আইনি সহায়তা, মানবাধিকার সমুন্নত করা, উত্তরাধিকার বিষয়ক আইনের বিভিন্ন সংস্কারের প্রদানের বিষয়গুলোও সামিটের বিভিন্ন সেশনে আলোচনায় স্থান পাবে। পররাষ্ট্রমন্ত্রী আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই সামিটে যোগদানের জন্য ২০ সদস্য বিশিষ্ট বাংলাদেশের উচ্চক্ষমতা সম্পন্ন প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দিবেন। প্রতিনিধি দলের সদস্যগণের মধ্যে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এবং নারী ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রীও থাকছেন ।

গত ৫ জানুয়ারি অনুষ্ঠিতব্য ১০ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জয়লাভ করে পুনরায় সরকার গঠনের পর পাশ্চাত্যের কোন দেশে এটিই হবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রথম সফর। প্রথম গার্ল সামিটে ৫২টি দেশের প্রতিধিগণ অংশগ্রহণ করবেন।বৃটেন সফরকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মঙ্গলবার সকালে ব্রিটেন প্রধানমন্ত্রী দপ্তর ১০ নম্বর ডাউনিং স্ট্রিটে প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরনের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠকে অংশগ্রহণ করবেন। প্রধানমন্ত্রী বৃটেনের অন্যান্য মন্ত্রী এবং বিরোধীদলের নেতৃবৃন্দের সঙ্গেও পারষ্পরিক অলোচনায় অংশ নেবেন। যার মধ্যে রয়েছেন- আন্তর্জাতিক উন্নয়ন বিষয়ক মন্ত্রী বিচারপতি গ্রিনিংস এবং বিরোধীদলের ’শ্যাডো ফরেন মিনিস্টার’ ডগলাস আলেকজান্ডার।শেখ হাসিনা যুক্তরাজ্যে বসবাসকারী প্রবাসী বাংলাদেশীদের একটি অনুষ্ঠানেও যোগ দেবেন।

এ এইচ মাহমুদ আলী বলেন, সফরে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এবং নারী ও শিশু বিষযক প্রতিমন্ত্রীরাও বিভিন্ন পৃথক অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে নারীর প্রতি বৈষম্য হ্রাস ও বাল্যবিবাহ বন্ধে সরকারের গ্রহিত পদক্ষেপগুলো তুলে ধরবেন। পররষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এই বৃটেন সফর অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ। কেননা বৃটেন বাংলাদেশের অন্যতম উন্নয়ন সহযোগী এবং সে দেশের জনগণ একাত্তরে মুক্তিযুদ্ধে খুবই গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখেছিল। অন্যদিকে, প্রায় ২ লাখ বাংলাদেশী শিক্ষার্থী বৃটেনে লেখাপড়া করছে এবং প্রবাসী বাংলাদেশীদের একটি বেশ বড়ো অংশ সেখানে বসবাসরত রয়েছেন।এক প্রশ্নের উত্তরে পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, যুক্তরাজ্য ও বাংলাদেশের দুই প্রধানমন্ত্রীর মধ্যে দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে বিভিন্ন দ্বিপাক্ষিক স্বার্থ-সংশ্লিষ্ট বিষয়াবলী নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা হবে।তিনি দিনের সফর শেষে আগামী বৃহস্পতিবার সকালে প্রধানমন্ত্রী দেশে ফিরবেন বলে আশা করা হচ্ছে।ব্রিফিংয়ে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম, নারী ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি, পররাষ্ট্র সচিব শহীদুল হক প্রমুখ।

Print Friendly, PDF & Email

Leave A Reply