লন্ডনে হাইকমিশনে হামলার নিন্দা জানিয়েছে অস্ট্রিয়া প্রবাসীরা

0 37

ভিয়েনা: অস্ট্রিয়া প্রবাসী বাঙালিরা লন্ডনে বাংলাদেশ হাইকমিশনে যুক্তরাজ্য বিএনপির বর্বর হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে। এক যুক্ত বিবৃতিতে তারা বলেন, ‘হাইকমিশন কোন দলের অফিস নয়, হাইকমিশনের কর্মকর্তা-কর্মচারীগণ কোন দলের নেতা-কর্মী নন। হাইকমিশন বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করে। হাইকমিশনের সম্পদের ক্ষতি মানে দেশের সম্পদের ক্ষতি। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাংলাদেশের স্থপতি। বঙ্গবন্ধুর ছবি ভাঙচুর মানে বাংলাদেশকে অসম্মান করা, অস্বিকার করা।’ প্রবাসী নেতৃবৃন্দ ‘এ ধরনের সহিংস এবং বেআইনী কার্যক্রম করে যারা বিদেশে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি ব্যাপকভাবে কলঙ্কিত করেছে সেইসব জঙ্গী অপশক্তির দোসরদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নিতে ব্রিটিশ সরকার ও বাংলাদেশ সরকারের প্রতি আহবান জানান।
উল্লেখ্য, খালেদা জিয়ার দুর্নীতি মামলার রায়ের প্রাক্কালে ৭ ফেব্রæয়ারি বিকেলে বাংলাদেশ হাইকমিশনে একটি স্মারকলিপি হস্তান্তরের অজুহাতে যুক্তরাজ্য বিএনপির সন্ত্রাসী নেতা-কর্মীরা সেখানে জোরপূর্বক ঢুকে ভাঙচুর চালায়। তারা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি ভাঙচুর করে। মিশনের কর্মীদের ওপর হামলা চালায়।
বিবৃতিতে স্বাক্ষর করেছেন,
সর্ব ইউরোপিয়ান আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক, অষ্ট্রিয়া প্রবাসী মানবাধিকার কর্মী, লেখক, সাংবাদিক এম. নজরুল ইসলাম, অষ্ট্রিয়া আওয়ামী লীগের সভাপতি খন্দকার হাফিজুর রহমান নাসিম, সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম কবির, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ অষ্ট্রিয়া ইউনিট কমান্ডের কমান্ডার মুক্তিযোদ্ধা বায়েজিদ মীর, বাংলাদেশ-অস্ট্রিয়া সমিতির সাবেক সভাপতি মজনু আজাদ, বাঙালি-অষ্ট্রিয়ান হিন্দু কালচারাল অ্যাসোসিয়েশন সাধারণ সম্পাদক রুহি দাস সাহা, অষ্ট্রিয়া আওয়ামী লীগের, সহ-সভাপতি আকতার হোসেন, ছামছুল ইসলাম, একেএম সওকত আলী, এমরান হোসেন, মিজানুর রহমান শ্যামল, মুক্তিযোদ্ধা সিরাজ চৌধুরী, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক শাহ কামাল, বাংলাদেশ-অস্ট্রিয়া সমিতির নেতা নয়ন হোসেন, কমিউনিটি নেতা ইমরুল কায়েস, লুৎফর রহমান সুজন প্রমুখ।

Print Friendly, PDF & Email

Leave A Reply