khabor.com, KHABOR.COM, khabor, news, bangladesh, shongbad, খবর, সংবাদ, বাংলাদেশ, বার্তা, বাংলা

জেনেভাস্থ বাংলাদেশ স্থায়ী মিশন এ র‍্যালি ও আলোচনার আয়োজন

0 39

১৩ জানুয়ারি ২০১৮, জেনেভাঃ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৭ মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণ ইউনেস্কোর ‘মেমোরি অব দ্য ওয়ার্ল্ড রেজিস্টার’–এ অন্তর্ভুক্তির মাধ্যমে ‘বিশ্ব প্রামাণ্য ঐতিহ্য’ হিসেবে স্বীকৃতি অর্জনে জেনেভাস্থ বাংলাদেশ স্থায়ী মিশন ১৩ জানুয়ারি ২০১৮ তারিখ, শনিবার স্থানীয় সময় সকাল সাড়ে এগারোটায় দূতাবাসের সামনে একটি জমায়েত, সংলগ্ন রাস্তায় একটি সংক্ষিপ্ত র‍্যালি ও আলোচনার আয়োজন করে।

জমায়েত ও র‍্যালিতে জাতিসঙ্ঘ এবং জেনেভাতে অবস্থিত বিশেষায়িত সংস্থায় কর্মরত বাংলাদেশী নাগরিকসহ বিপুলসংখ্যক প্রবাসী অংশগ্রহণ করেন। জমায়েতটি স্থানীয় উৎসুক জনতার নজর কাড়ে। আগ্রহী পথচারীরাও র‍্যালিতে অংশ নেন। জেনেভাস্থ জাতিসঙ্ঘে নিযুক্ত বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি এবং সুইজারল্যান্ডে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোঃ শামীম আহসান ও দূতাবাস কর্মীরা ভাষণটির তাৎপর্য স্থানীয়দের মধ্যে তুলে ধরেন।

রাষ্ট্রদূত আহসান তাঁর বক্তব্যে বলেনঃ “বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের এই ভাষণ বাঙালির শ্রেষ্ঠতম কবিতা, আবহমান কালের সবচেয়ে সাহসী উচ্চারণ। এ ভাষণ অশ্রুতপূর্ব জন-জাগরণের এক বিশুদ্ধতম সঙ্গীত, যা সময়ের পরিসীমায় কালোত্তীর্ণ ও সতত প্রেরণাদায়ী। মুক্তিকামী বাঙ্গালির আবেগ, উদ্দীপনা ও সংগ্রামী দ্যোতনায় এ ভাষণের অবয়ব রচিত, এর অন্তরে স্বাধিকারের অসাধারন কবিত্বময় দৃঢ়তা । এ ভাষণ ছিল মুক্তির গান – যার অনুপম কথামালা, বাক্যবিন্যাস, উপমা ও উচ্চারণ গণমানুষের উন্মুখ অন্তরকে অতি সহজেই স্পর্শ করেছিল। মুক্তিপিয়াসু বাঙ্গালির চিন্তন ও মননে স্বাধীনতার উদগ্র বাসনাকে জাগ্রত করেছিল। তাই, ইউনেস্কোর এই স্বীকৃতি বাঙালির জন্য অনেক গৌরবের, অনেক আনন্দের।” প্রবাসী বাংলাদেশীরাও এতে বক্তব্য রাখেন। এসময় বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণের রেকর্ডের নির্বাচিত অংশও বাজিয়ে শোনানো হয়।
এর আগে গত ২৫ নভেম্বর ২০১৭ তারিখে বঙ্গবন্ধুর ভাষণের সম্মানজনক আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি উদযাপন উপলক্ষ্যে জেনেভাস্থ বাংলাদেশ স্থায়ী মিশন দূতাবাসের কমিউনিটি হলে বিশেষ অনুষ্ঠানমালার আয়োজন করে।

Print Friendly, PDF & Email

Leave A Reply