khabor.com, KHABOR.COM, khabor, news, bangladesh, shongbad, খবর, সংবাদ, বাংলাদেশ, বার্তা, বাংলা

ট্রাম্পের প্রথম বছরে গৃহহারা আমেরিকানের সংখ্যা বৃদ্ধি ১%

0 22

এনআরবি নিউজ, নিউইয়র্ক থেকে : জাতিসংঘের শহর নিউইয়র্ক সিটিতে ৭৬ হাজার, লসএঞ্জেলেসে ৫৫ হাজার এবং হোয়াইট হাউজ সংলগ্ন ওয়াশিংটন ডিসিতে ১২ হাজার সহ সারা আমেরিকায় গৃহহারা মানুষের সংখ্যা ৫ লাখ ৫৪ হাজার। হাউজিং এ্যান্ড আরবান ডেভেলপমেন্ট মন্ত্রণালয় এ তথ্য প্রকাশ করেছে ৬ ডিসেম্বর বুধবার।

গৃহহারাদের মধ্যে সবচেয়ে বেশী নাজুক অবস্থায় দিনাতিপাত করছে লসএঞ্জেলেস এবং পশ্চিমাঞ্চলীয় শহরগুলোতে। প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার শেষ বছর তথা ২০১৬ সালের তুলনায় এ সংখ্যা ১% বেশী বলেও উল্লেখ করেছে মন্ত্রণালয়। ২০১০ সালের পর এবারই প্রথম অর্থাৎ ট্রাম্পের প্রথম বছরেই গৃহহারা আমেরিকানের সংখ্যা বৃদ্ধির ঘটনা ঘটলো। প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী, এক লাখ ৯৩ হাজার গৃহহারার রাত কাটানোর কোন জায়গা নেই। এরা পরিত্যক্ত যানবাহন অথবা রাস্তার পাশে কিংবা অস্থায়ী তাবুর নীচে মানবেতর জীবন-যাপন করছে। ২০১৫ সালে এমন নাজুক পরিস্থিতির মধ্যে রাত্রি যাপনকারি আমেরিকানের সংখ্যা এবারের চেয়ে ৯% কম ছিল বলেও উল্লেখ করা হয়েছে ঐ পরিসংখ্যানে।

মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা উল্লেখ করেছেন, কোন কোন সিটিতে মন্দার কারণে গৃহহারাদের দুর্ভোগ চরমে উঠছে ক্রমান্বয়ে। এছাড়া, স্বল্প আয়ের মানুষের পক্ষে বাড়ি ভাড়া সংগ্রহ করাও কঠিন হয়ে পড়েছে। নিউইয়র্কসহ বিভিন্ন সিটি প্রশাসনের পক্ষ থেকে এপার্টমেন্ট বিল্ডিং নির্মাণ করে নামমাত্র ভাড়ায় বরাদ্দ দেয়া হচ্ছে স্বল্প ও মাঝারি আয়ের আমেরিকানদের কাছে। তবে চাহিদার তুলনায় এমন এপার্টমেন্টের সংখ্যা নিতান্তই নগন্য হওয়ায় গৃহহারা মানুষের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। তবে আটলান্টা, ফিলাডেলফিয়া, মায়ামী, ডেনভার এবং হাওয়াই সিটিতে গৃহহারা মানুষের সংখ্যা কমেছে।

উল্লেখ্য, গৃহহারা মানুষের সংখ্যা উদ্বেগজনক আকার ধারণ করায় ২০১৫ সালে হাওয়াইতে জরুরী অবস্থা জারি করা হয়েছিল। গৃহহারা-পরিস্থিতির এ বিবরণ ইতিমধ্যেই মার্কিন কংগ্রেসেও সাবমিট করা হয়েছে। এ সমস্যার স্থায়ী সমাধানে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের অনুরোধ জানানো হয়েছে কংগ্রেসে।

Print Friendly, PDF & Email

Leave A Reply