khabor.com, KHABOR.COM, khabor, news, bangladesh, shongbad, খবর, সংবাদ, বাংলাদেশ, বার্তা, বাংলা

রাজবধূ হওয়ার জন্য কী হারাচ্ছেন মেগান?

0 34

মেগান মার্কেলঅভিনয়শিল্পী মেগান মার্কেল যুক্তরাষ্ট্রে খুব সাধারণভাবে বেড়ে ওঠা এক মেয়ে। তাঁর মা পেশায় সাইকোথেরাপিস্ট ও যোগব্যায়ামের প্রশিক্ষক। আর বাবা অ্যামি অ্যাওয়ার্ডজয়ী আলোক নির্দেশক। কিছুদিন আগেও মেগানকে সবাই বলতেন অভিনেত্রী। রাজপুত্র হ্যারির সঙ্গে বাগদানের ঘোষণা আসার আগ পর্যন্ত অভিনেত্রীর আগে ‘সাবেক’ শব্দটি জুড়ে বসেনি। কিন্তু রাজবধূ হওয়ায় তাঁকে অভিনয় ছাড়তে হবে। ছাড়তে হবে মডেলিংও। শুধু তা-ই নয়, রাজপ্রাসাদে রাজকীয় জীবন যাপন করার জন্য আগের জীবনের অনেক কিছুই ছাড়তে হচ্ছে ‘স্যুটস’ সিরিজের এই তারকাকে।

২০১৮ সালের মে মাসে বিয়ের পর হ্যারি ও মেগান রাজপ্রাসাদের ভেতর নটিংহাম প্যালেসে সংসার পাতবেন। কানাডার টরন্টোতে এত দিন মেগান যে দুই বেডরুমের ফ্ল্যাটে থাকতেন, তা ছেড়ে দিয়েছেন। সেখানে তাঁকে রেখে আসতে হবে প্রিয় কুকুর বোগার্ডকে। তাঁর এই পোষা কুকুর উদ্ধারকাজের প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত। অনেক দিন ধরেই মেগানের সঙ্গে আছে কুকুরটি। কিন্তু রাজপ্রাসাদ থেকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, বয়স বেশি হওয়ায় বোগার্ডকে প্লেনে করে যুক্তরাজ্যে আনা যাবে না। মেগানকে ছাড়তে হবে তাঁর দাতব্য কাজও। ৩৬ বছর বয়সী এই তারকা ছোটবেলা থেকেই নানা সামাজিক কাজের সঙ্গে যুক্ত। জাতিসংঘের কিছু দাতব্য প্রকল্পের সঙ্গেও জড়িত মেগান মার্কেল। তাঁকে এখন সেসব ছাড়তে হবে। এ ছাড়া হ্যারির বাগদত্তা কিছু সামাজিক প্রকল্পের পৃষ্ঠপোষকতা করছেন। ব্রিটেনের রাজবংশের শর্ত মেনে এসব ত্যাগ করতে হচ্ছে মেগানকে। আরও জানা গেছে, ভালোবাসার জন্য মেগান নিজের পেশা, পোষা প্রাণী সব ছাড়তে প্রস্তুত।

প্রিন্স হ্যারি ও মার্কেলকিন্তু এত ত্যাগ স্বীকারের পরও ‘প্রিন্সেস’ উপাধি পাচ্ছেন না মেগান মার্কেল। কারণ ইতিহাস বলে, তাঁর বংশে কারও ‘রাজরক্ত’ নেই। ব্রিটেনের রাজকীয় প্রটোকল অনুযায়ী তাই মেগান কখনো হতে পারবেন না ‘প্রিন্সেস মেগান’। ডেইলি মেইল।

Print Friendly, PDF & Email

Leave A Reply