khabor.com, KHABOR.COM, khabor, news, bangladesh, shongbad, খবর, সংবাদ, বাংলাদেশ, বার্তা, বাংলা

খোকন-মুরাদকে মেলালেন কাদের

0 33

দীর্ঘদিনের পুষে রাখা ক্ষোভ দূর হলো। পরস্পরের সঙ্গে হাত মেলালেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র সাঈদ খোকন ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের উদ্যোগে তাদের এই মিলনে সাক্ষী থাকলেন মহানগরীর বিপুলসংখ্যক নেতাকর্মী। মঙ্গলবার প্রয়াত মেয়র মোহাম্মদ হানিফের ১১তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে নগর ভবনে আয়োজিত এক স্মরণসভায় মহানগরীর শীর্ষস্থানীয় এই দুই নেতাকে মিলিয়ে দেন ওবায়দুল কাদের।


.
ঢাকা মহানগরী দক্ষিণের কমিটি গঠনকে কেন্দ্র করেই সাঈদ খোকন ও মুরাদের মধ্যে দ্বন্দ্ব চলে আসছিল। এ নিয়ে দু’নেতার অনুসারিরা একাধিক অনুষ্ঠানে মারামারিও করেছেন। এদিন সাঈদ খোকন ও শাহে আলম মুরাদকে মঞ্চের সামনে এনে সবাইকে দেখিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘এই দেখুন, তারা মিলে গেছে।’

এরপর স্মরণসভায় বক্তব্য দেওয়ার মাঝখানে তিনি বলেন, ‘শাহে আলম কই, মেয়র সাহেব কই- তোমরা এদিকে আসো। এই দেখুন তারা এক হয়ে গেছে। সামান্য ভুল বোঝাবুঝি ছিল, আজ এবং এখন থেকে তারা এক হয়ে গেছে।’ ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘দলের মধ্যে কোনো সমস্যা থাকলে আমাকে বলবেন। দলের কেন্দ্রীয় নেতারা আছেন, তাদের বলবেন। যদি কাজ না হয় তাহলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বলবেন। তাই বলে ঘরের কথা নিয়ে চায়ের দোকানে বসে আলোচনা করা যাবে না। চায়ের দোকানে যদি বসে নিজেরা নিজেদের সমালোচনা করেন, তাহলে বাহিরের শত্রুর প্রয়োজন হবে না।’

আওয়ামী লীগের এই নেতা বলেন, ‘মহানগর আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা সবাই ঐক্যবদ্ধ। আজকে আমার এখানে আসার মূল উদ্দেশ্য- নেতা মেয়র হানিফকে স্মরণ করতে গিয়ে ঐক্যবদ্ধ আওয়ামী লীগকে সবার সামনে তুলে ধরা। সাঈদ-মুরাদকে মিলিয়ে সবার সেই প্রত্যাশা পূরণ করলাম।’

এই দু’নেতার উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগে সংঘাত-কোন্দলের কোনো স্থান নেই। সময় এখন এগিয়ে যাওয়ার। আমাদের দুর্বলতার সুযোগ নিয়ে কোনো অপশক্তি যাতে ক্ষমতায় আসতে না পারে, সেজন্য সবাইকে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে, আগামী নির্বাচনের জন্য কাজ করতে হবে।’ পরে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘এখানে মুরাদ, খোকন, কেউই আলাদা নয়। দলের মধ্যে কোনো বিভেদ নেই। এরপরও যদি অপ্রত্যাশিত কোনো ঘটনা ঘটে থাকে, নেত্রী, দল, কেউই তাদের ছাড় দেবে না।’

সাঈদ খোকনের সঙ্গে দ্বন্দ্ব নিয়ে শাহে আলম মুরাদ বলেন, ‘আমাদের মধ্যে কোনো দ্বন্দ্ব নেই। যা হয়েছে, তা ভুল বোঝাবুঝির কারণে। আমি দ্বন্দ্বে বিশ্বাস করি না।’ আর সাঈদ খোকন বলেন, ‘বহিরাগতরা এসে ঝামেলা করেছে। আমাদের কেউই কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটায়নি।’

Print Friendly, PDF & Email

Leave A Reply