khabor.com, KHABOR.COM, khabor, news, bangladesh, shongbad, খবর, সংবাদ, বাংলাদেশ, বার্তা, বাংলা

কলেজ ছাত্রের কবজি কেটে উল্লাস!

0 30

আতিকুর রহমান, গাজীপুর: গাজীপুরে এক কলেজ ছাত্রের ডান হাতের কবজি কেটে উল্লাস করছে উঠতি সন্ত্রাসীরা। ঘটনার ১০ দিন পরও সাত আসামিকে গ্রেফতার করতে পারেনি জয়দেবপুর থানা পুলিশ। ৩ নভেম্বর শুক্রবার সন্ধ্যায় মহানগরীর লাগালিয়া এলাকায় এ নৃশংস ঘটনা ঘটে।

মামলার আসামিরা হলো- টুটুল, অমিত, সোহাগ, মবিন, নাজমুল, সজীব, আকাশ ও মফিজুল। এর মধ্যে ঘটনার দিন রাতে মবিনকে গ্রেফতার করে এক দিনের রিমান্ডে নেয় পুলিশ।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, লাগালিয়া দক্ষিণ পাড়ার আলমগীর হোসেনের ছেলে সারোয়ার হোসেন (১৯) গাজীপুর ক্যান্টনমেন্ট কলেজের দ্বাদশ দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র। ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র করে আসামিদের সাথে তার দ্বন্দ্ব হয়। গত ২৫ অক্টোবর বিকেলে তাকে হাড়িনাল বাজার থেকে তোলে নিয়ে প্রথমবার মারধর করা হয়।

পরে গত ৩ নভেম্বর শুক্রবার বিকেলে মুড়ি খাওয়ার কথা বলে মবিন ৫০০ টাকার বিনিময়ে সারোয়ারকে বাড়ি থেকে ডেকে বুলুর নামা নামক স্থানে নিয়ে যায়। সেখানে আগে থেকে ওঁত পেতে থাকা আসামিরা প্রথমে পিঠে কোপ দেয়। তখন মাটিতে লুটিয়ে পড়লে টুটুল সামুরাই দিয়ে সারোয়ারের ডান হাতের কবজি কেটে ছুড়ে ফেলে দেয়।

এরপর সারোয়ারকে উদ্ধার করে গাজীপুরের শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক প্রাথমিক চিকিৎসা না দিয়ে ঢাকার পঙ্গু হাসপাতালে পাঠান।

সেখান থেকে তাকে অ্যাপোলো হাসপাতালে নিয়েও চার ঘন্টা পর খুঁজে পাওয়া হাতটি আর জোড়া লাগানো যায়নি। পরদিন পঙ্গু হাসপাতাল থেকে গাজীপুর নিয়ে আসা হয়।

শহীদ তাজউদ্দীন মেডিকেলের বেডে শুয়ে সারোয়ার বলেন, আমি এসএসসিতে এ প্লাস পেয়েছি। আমার হাতের লেখা খুব সুন্দর থাকায় সবাই খুব প্রশংসা করতো। এখন আমার হাতটাই নেই। আমার স্বপ্ন ছিল ডাক্তার বা পাইলট হওয়া। তারা আমার সব শেষ করে দিল।

তিনি বলেন, খেলায় আমাদের দেওয়া দুটি গোল তারা মানতে পারেনি। হাত কাটার পর আমার গলা কাটার কথাও বলছিল। এ ব্যাপারে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই রফিকুল ইসলামের সঙ্গে মোবাইলে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।

Print Friendly, PDF & Email

Leave A Reply