khabor.com, KHABOR.COM, khabor, news, bangladesh, shongbad, খবর, সংবাদ, বাংলাদেশ, বার্তা, বাংলা

রংপুরে মুসল্লিদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ, নিহত ১, আহত ২৫

0 20

রংপুর: রংপুরে মহানবীকে(স.) নিয়ে ফেসবুকে কটূক্তির ঘটনায় প্রতিবাদ কর্মসূচি চলাকালে স্থানীয় মুসল্লিদের সঙ্গে পুলিশের ব্যাপক সংঘর্ষ হয়েছে। এতে হামিদুল নামের স্থানীয় এক যুবক (২৭) নিহত হয়েছেন।

আজ শুক্রবার জুমার নামাজের পর রংপুর সদর উপজেলার খলেয়া ইউনিয়নের শলেয়া শাহ বাজারে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ রাবাট বুলেট ও টিয়ারশেল ছুড়েছে। এতে গুলিবিদ্ধসহ অন্তত ২৫ জন আহত হয়েছে। এ সময় বিক্ষুব্ধ মুসল্লিরা ওই এলাকার ঠাকুরপাড়ার কয়েকটি বাড়িতে অগ্নিসংযোগ করে।

পুলিশ জানায়, নারায়ণগঞ্জে ফতুল্লার একটি গার্মেন্ট কারখানায় কাজ করেন টিটু রায়। থাকেন সেখানেই। তিনি পাগলাপীর ঠাকুরপাড়া গ্রামের বাসিন্দা। কয়েকদিন আগে নিজের ফেসবুক আইডিতে টিটু আপত্তিকর একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন বলে অভিযোগ তোলে গ্রামবাসী। এ কারণে আশপাশের এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, কয়েকদিন আগে ওই এলাকার টিটু রায় নামের এক ব্যক্তি মহানবীকে (স.) নিয়ে ফেসবুকে কটূক্তি ও আপত্তিকর ছবি পোস্ট করেন। এর প্রতিবাদে গত মঙ্গলবার পাগলাপীর বাজারে প্রতিবাদ সমাবেশে তাকে গ্রেপ্তারে ২৪ ঘণ্টা সময় বেঁধে দেয় এলাকাবাসী। কিন্তু গত তিন দিনেও তাকে গ্রেপ্তার না করায় আজ শুক্রবার জুমার নামাজের পর স্থানীয় মুসল্লিরা একজোট হয়ে পাগলাপীর বাজারে মানববন্ধন শুরু করেন। এ সময় ওই কর্মসূচিতে সংহতি জানিয়ে আশপাশের কয়েক হাজার মুসল্লি সমবেত হন।

একপর্যায়ে বিক্ষুব্ধ মুসল্লিরা ঠাকুরপাড়ায় টিটু রায়ের বাড়িতে হামলা চালাতে গেলে পুলিশের সঙ্গে তাদের সংঘর্ষ শুরু হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ টিয়ারশেল ও রাবার বুলেট নিক্ষেপ করলে মাহাবুল, জামিল, আলিমসহ ছয়জন গুলিবিদ্ধসহ এবং সংঘর্ষে অন্তত ২৫ জন আহত হয়েছেন। নিহত হন হামিদুল নামের এক যুবক। আহতদের রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে ওই এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে।

রংপুর মেডিক্যালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসা কর্মকর্তা ডা. সুজন বলেন, “সন্ধ্যা পর্যন্ত হাসপাতালে ১৪ জন ভর্তি হয়েছেন। এদের মধ্যে গুলিবিদ্ধ কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। ” নিহতের স্বজন আজিমুল ইসলাম বলেন, “হামিদুলকে মৃত অবস্থায় পেয়ে ভর্তি করেনি হাসপাতালে কর্তৃপক্ষ। লাশ হাসপাতালের জরুরি বিভাগের মেঝেতে পড়ে আছে। “

এ ঘটনার পর বিক্ষুব্ধ জনতা প্রায় চার ঘণ্টা রংপুর-দিনাজপুর মহাসড়কে অবরোধের মাধ্যমে বিক্ষোভ করেছে। এতে মহাসড়কে যানচলাচল বন্ধ হয়ে যায়। বিপুলসংখ্যক পুলিশ ঘটনাস্থলে অবস্থান করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করে। কোতোয়ালি থানার ওসি (অপারেশন) মোকতারুল ইসলাম সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় বলেন, “পরিস্থিতি এখন নিয়ন্ত্রণের মধ্যে রয়েছে। “

এদিকে, এ ঘটনায় সন্ধ্যার পর তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট রাফি মোহাম্মদ রফিককে আহ্বায়ক করে এ কমিটি গঠন করা হয়। জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ ওয়াহিদুজ্জামান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

Print Friendly, PDF & Email

Leave A Reply