khabor.com, KHABOR.COM, khabor, news, bangladesh, shongbad, খবর, সংবাদ, বাংলাদেশ, বার্তা, বাংলা

​অঘটন ঘটিয়ে ফাইনালে হারান্ডন বেঙ্গলস ও সাথে ভার্জিনিয়া টাইগারস

28

টেকট্রেন্ড বাংলাদেশ ক্রিকেট লীগের পঞ্চম আসরের প্রথম সেমিফাইনালে হারান্ডন বেঙ্গলস অঘটন ঘটিয়ে ভার্জিনিয়া ওয়ারিয়র্স কে মাত্র এক রানে হারিয়ে প্রথম বারের মত বাংলাদেশ ক্রিকেট লীগের ফাইনালে উঠলো।  টসে জয়লাভ করে ওয়ারিয়র্স  বেঙ্গলসকে ব্যাটিং এ আমন্ত্রণ জানায়।  ব্যাটিং এ নেমে শুরুতেই  চাপে পড়ে যায় বেঙ্গলস। ওয়ারিয়র্স অধিনায়ক তানজির তার প্রথম ওভারেই জোড়া আঘাত হানেন।  মাত্র ৬.১ ওভারে মাত্র ২১ রানে বেঙ্গলস তাদের টপ ৫ উইকেট হারিয়ে ফেলে।  ১০.২ ওভারে ৩৭ রানে ৭ উইকেট পড়ে গেলে নাজু ও আফগান খেলোয়াড় নাভিদ নূরী দলের হাল ধরেন। তারা ২৬ রানের জুটি গড়েন।  নাজু সর্বোচ্চ ১৯ রান করেন। শেষের দিকে ফাহাদের মারমূখী ১৩ রানের ক্যামিও দলের রানকে ৮৮ তে নিয়ে যায়। তবে বেঙ্গলস এর ইনিংসকে সম্মানজনক স্থানে আসতে সবে চেয়ে বেশি সাহায্য করেন অতিরিক্ত রান।  ২৫ রান আসে এই অতিরিক্ত খাত থেকে।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে জুসি তার প্রথম বলেই ইফতির করা বলে এলবি হয়ে গেলে বেঙ্গলস জয়ের আশা শুরু করে।  ক্লেমেন্ট এর সাথে জুটি বাঁধলেও তানজির তার ব্যক্তিগত ৩ রানে আউট হয়ে গেলে আবারো চাপের সম্মুখীন হয় ওয়ারিয়র্স।  ক্লেমেন্ট নাজমুল সুমন বারী সবাই চেষ্টা করেও দলকে জয়ের বন্দরে নিতে পারেনি।  শেষ মুহূর্তে আশরাফ ছয় মেরে দলকে জয়ের কাছে নিয়েও একটি চারের অভাবে তা আর করে উঠতে পারেনি।৪ ওভারে ২২ রান দিয়ে ৪ উইকেট নিয়ে বেঙ্গলস এর অধিনায়ক জুনায়েদ ম্যাচ সেরা হন।  নাভিদ ৪ ওভারে এক মেডেন সহ মাত্র ৩ রান দিয়ে এক উইকেট লাভ করেন। উদীয়মান তরুণ খেলোয়াড় ইফতি ২ উইকেট লাভ করেন।

দিনের দ্বিতীয় সেমী ফাইনাল অংশ নেয় পেন্থার্স ও ভার্জিনিয়া টাইগার্স।  এক বছর বিরতি দিয়ে আবারো বিসিএল ফেরা টাইগার্স এ ফাইনাল এ যেতে খুব বেশি কঠিন  পরীক্ষার সম্মুখীন হতে হয়নি।  ভার্জিনিয়া টাইগার্স ১৯.২ ওভার ব্যাট করে সব উইকেট হারিয়ে ১৩৬ রান তোলে।  অক্সন হিল এর মাঠে এটাকে বড় স্কোর বলেই ধরা যায়।  নিউ ইয়র্ক থেকে আগত দিহান মাত্র ৪ করে আউট হয়ে গেলেও মিশিগান থেকে আগত দুই মারমূখী ব্যাটসম্যান জ্যাক ও জুবেল ১৭ ও ৪৩ করে দলের সংগ্রহ কে স্ফীত করেন। শেষের দিকে যুবি ৪টি বাউন্ডারি হাঁকিয়ে ১৪ বলে ২২ করে দলের স্কোরকে বড় হতে সাহায্য করেন।  পেন্থার্স এর পক্ষে ভিজে ৩ উইকেট ও উজ্জল, সজীব এবং সৌম্য ২টি করে উইকেট নেন।  জবাবে ব্যাট করতে নেমে পেন্থার্স ক্রমাগত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকে।  কিন্তু খেলার শেষ পর্যায়ে রাকিব এর ঝোড়ো ইনিংস টাইগার্স শিবিরে আতঙ্ক ছড়ায়।  কিন্তু সাকি ও মুফাস্সির এর মাপা লেন্থের বল আর কোনো অঘটন ঘটাতে দেয়নি।  জুবেল তার ব্যাটিং ও বোলিং এর জন্য সেরা পারফর্মার হোন।

সকাল থেকেই মাঠে প্রচুর দর্শক মাঠে আসতে  থাকেন। দুটি সেমি ফাইনাল খেলাই দর্শকদের  অনেক আনন্দ দেয়। মাঠে দর্শকদের জন্য গরম খাবার পরিবেশন করার জন্য ফুড ট্রাক উপস্থিত ছিলো।

বৃষ্টির জন্য রবিবার ফাইনাল খেলা বন্ধ থাকে ও পরবর্তী ফাইনাল এর তারিখ নভেম্বর এর ৫ তারিখে নেয়া হয় মার্ক টোয়েন মিডল স্কুল মাঠে।  বিসিএল সেমী ফাইনালের সকল দর্শকদের আবারো ফাইনালে মাঠে  আসার জন্য অনুরোধ করেছেন ।

Print Friendly, PDF & Email

Comments are closed.