khabor.com, KHABOR.COM, khabor, news, bangladesh, shongbad, খবর, সংবাদ, বাংলাদেশ, বার্তা, বাংলা

দুই ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত দুই

23

নারায়ণগঞ্জ শহরে ও কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলায় পুলিশের সঙ্গে দুই ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দুজন নিহত হয়েছেন। নারায়ণগঞ্জ পুলিশ বলছে, সেখানে নিহত ব্যক্তি তালিকাভুক্ত সন্ত্রাসী। কুষ্টিয়া পুলিশও জানিয়েছে, সেখানে নিহত ব্যক্তি হত্যা মামলার এজাহারভুক্ত আসামি। আজ শুক্রবার ভোরে ও গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে এসব ‘বন্দুকযুদ্ধ’ হয়।

নারায়ণগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. শরফুদ্দিন বলেন, আজ ভোরে শহরের গলাচিপা গোয়ালিয়া খাল এলাকায় গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মনিরুজ্জামান শাহীন ওরফে বন্দুক শাহীন (৫০) নিহত হন। তিনি তালিকাভুক্ত শীর্ষ সন্ত্রাসী ছিলেন। তাঁর বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় হত্যা, চাঁদাবাজি, মাদক ও সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের অভিযোগে ১২ টির বেশি মামলা রয়েছে। গোপন তথ্যের ভিত্তিতে শাহীনকে গ্রেপ্তার করতে গেলে পুলিশকে লক্ষ করে গুলি ছোড়ে তাঁর সহযোগীরা। পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। দুই পক্ষের মধ্যে বন্দুকযুদ্ধে শাহীন নিহত হন।

পুলিশের ভাষ্য, বন্দুকযুদ্ধের ঘটনায় ডিবির ওসি মাহবুবুর রহমান ও উপপরিদর্শক (এসআই) মিজান আহত হয়েছেন। ঘটনাস্থল থেকে ৪টি গুলিসহ বিদেশি একটি পিস্তল উদ্ধার করা হয়েছে।

এদিকে কুমারখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুল খালেকের দাবি, গত রোববার সকালে কুমারখালী বাধবাজার এলাকায় কালী নদী থেকে প্রবাসী রাকিব হোসেনের হত্যা করা লাশ উদ্ধার করা হয়। ওই ঘটনার মূল পরিকল্পনাকারী দুজনসহ পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার রাত নয়টার দিকে মামলার এজাহারভুক্ত অন্যতম আসামি শাহিনকে লাহিনীপাড়া এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাঁর অন্য সহযোগীরা কসবা এলাকায় পদ্মা নদীর পাড়ে গোপন বৈঠক করছে। পরে তাঁকে নিয়ে রাত দুইটার দিকে সেখানে অভিযানে যাওয়া হয়। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে তারা গুলি ছোড়ে। পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। এ সময় শাহিন পালাতে গেলে গুলিবিদ্ধ হয়। তাঁকে উদ্ধার করে কুমারখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

ওসি আরও জানান, ঘটনাস্থল থেকে বিদেশি একটি পিস্তল, গুলি ও রামদা উদ্ধার করা হয়েছে। ‘বন্দুকযুদ্ধে’ পুলিশের কয়েকজন সদস্য আহত হয়েছেন। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email

Comments are closed.