khabor.com, KHABOR.COM, khabor, news, bangladesh, shongbad, খবর, সংবাদ, বাংলাদেশ, বার্তা, বাংলা

জামায়াত নেতাদের মুক্তির দাবিতে নিউ ইয়র্কে প্রতিবাদ সভা

0 25

নিউইয়র্ক : জামায়াতে ইসলামীর আমির মকবুল আহমাদ,সেত্রেটারী জেনারেল ডা: শফিকুর রহমানসহ নয়জনকে নেতাকে গ্রেপ্তারের প্রতিবাদে তাৎক্ষনিক বিক্ষোভ ও ব্রুকলিনে রাজপথে মিছিল করেছে নিউ ইয়র্ক প্রবাসী বাংলাদেশীরা। সোমবার স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৭টা নিউ ইয়র্কে বাংলাদেশী অধ্যুষিত এলাকা জ্যামাইকা এবং ব্রুকলিনে পৃথক ২টি প্রতিবাদ সভা ও মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। বাংলাদেশী আমেরিকা প্রগ্রেসিভ ফোরাম (বাপফ)’র আয়োজনে প্রতিবাদ সভায় অবিলম্বে তাদের মুক্তি দাবি জানিয়ে বক্তারা বলেন, বাংলাদেশে একমাত্র গণতান্ত্রিক দল জামায়াতে ইসলামী।

সরকার রাজনৈতিকভাবে এই গণতান্ত্রিক দলকে মোকাবেলা করতে ব্যর্থ হয়ে প্রতিহিংসামূলক অগণতান্ত্রিক পথ বেছে নিয়েছে। তাই জামায়াতের আমির মকবুল আহমাদ, সেত্রেুটারী জেনারেল ডা: শফিকুর রহমান, ঢাকা মহানগর আমির নূরুল ইসলাম বুলবুল, সেত্রেুটারী শফিকুল ইসলাম মাসুদ, চট্রগ্রাম মহানগর আমির মুহাম্মদ শাহাজানসহ শীর্ষ নেতাদের হয়রানিমূলক মিথ্যা মামলার অজুহাতে গ্রেপ্তার করেছে। আমরা সরকারের এ প্রতিহিংসামূলক আচরনের তীব্র নিন্দা জানাই। তারা সরকারের সমালোচনা করে বলেন, ডিজিটাল কারচুপির মাধ্যমে বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকেই ইসলাম, ইসলামী মূল্যবোধ ও ইসলামী নেতৃত্ব ধ্বংসের নানামুখী ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে।

সরকারের রাজনৈতিক সিদ্ধান্তে গঠিত ট্রাইব্যুনালে জামায়াতে কয়েকজন নেতাকে আওয়ামী রাজনৈতিক কর্মী বিচারকদের প্রহসনের রায়ে বিচারিক হত্যা করছে। এখন আবারও মাওলানা আব্দুস সোহবান, এটিএম আজহারুল ইসলামকে হত্যার ষড়যন্ত্র করছে। বক্তারা আরো বলেন, অবৈধ সরকারের জুলুম নিপীড়ন অতীতের সকল রেকর্ড ভঙ্গ করেছে। শেষ পর্যন্ত ঘরোয়া পরিবেশ থেকেও জামায়াত নেতাদের গ্রেপ্তার করা হচ্ছে। যা বাংলাদেশের দীর্ঘদিনের রাজনৈতিক সহমর্মিতার সব পথকে রুদ্ধ করেছে। মিথ্যা মামলায় গ্রেপ্তারকৃত নেতাদের অবিলম্বে মুক্তি দাবি করে তারা বলেন, গুপ্তহত্যা, মামলা-হামলা ও গ্রেপ্তারের মাধ্যমে ক্ষমতা পাকাপোক্ত করতে চাচ্ছে এ অবৈধ সরকার। দেশে মানুষের জান-মালের নিরাপত্তা নেই। জনগণের মত প্রকাশের স্বাধীনতা নেই, নেই সংবাদমাধ্যমের স্বাধীনতাও। সরকার ক্ষমতাকে দীর্ঘস্থায়ী ও পাকাপোক্ত করতে বিরোধী দল-মত সহ্য করতে পারছে না। বিরোধী দলের নেতা-কর্মীদের দমন-নিপীড়নের মাধ্যমে কোণঠাসা করে একদলীয় শাসন প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে সরকার একের পর এক অগণতান্ত্রিক কর্মকান্ড চালিয়ে যাচ্ছে। তারা অবিলম্বে জামায়াত আমিরসহ সকলের মুক্তি দাবি করেন এবং সরকারের অগণতান্ত্রিক ও প্রতিহিংসামূলক আচরন বিশ্ববাসীকে জানান দেওয়ার জন্য জাতিসংঘ ও ষ্টেট ডিপার্টমেন্টে স্বারকলিপি ও বিক্ষোভ করার ঘোষণা করেন।আলোচনা সভার পর নেতৃবৃন্দের মুক্তির দাবি জানিয়ে ব্রুকলিনের রাজপথে মিছিল করা হয়।

জ্যামাইকা কাবার কিং রেষ্টুরেন্টে প্রতিবাদ সভায় সভাপতিত্ব করেন প্রফেসর দেলোয়ার মজুমদার। এতে রাখেন মাহমুদ হোসাইন শামীম, মাওলানা আমিনুল ইসলাম, ইঞ্জিনিয়ার আব্দুল আউয়াল, মোহামামদ ওয়াজেদ, মো: আব্দুল গফুর, মোশাররফ হোসাইন, মামুন হাসান প্রমুখ।

ব্রুকলিনে ৫৪৩ ম্যাকডোনাল্ড এভিউতে আয়োজিত প্রতিবাদ সভায় সভাপতিত্ব করেন প্রফেসিভ ফোরামের সভাপতি মুকিযোদ্ধা প্রফেসর নূরুল ইসলাম। জামায়াত নেতৃবৃন্দের মুক্তি দাবি করে বক্তব্য রাখেন, ফোরামের সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুর রহমান, শিক্ষাবিদ আবুসামীহাহ সিরাজুল ইসলাম, ওলামা ফেডারেশনের নেতা মাওলানা সিহাব উদ্দিন, সাইফুল্লাহ বেলাল, আজিজ উল্লঅহ, মাওলানা সাফায়েত হোসাইন, সোলাইমান হোসেন, প্রিন্সিপাল কাজী আশরাফ প্রমুখ।

Print Friendly, PDF & Email

Leave A Reply