khabor.com, KHABOR.COM, khabor, news, bangladesh, shongbad, খবর, সংবাদ, বাংলাদেশ, বার্তা, বাংলা

৬ অক্টোবর থেকে শুরু ফ্রেশ ফুলক্রিম মিল্ক পাউডার ইনভেন্টরস পাপেট ফেস্টিভ্যাল ২০১৭

38

সব বয়সী শিশুর মাঝে তুমুল জনপ্রিয় পাপেট শো। পাপেট চরিত্রের উদ্ভাবনী নানা পরিবেশনার মধ্য দিয়েই তার হাতে তুলে দেয়া সম্ভব বর্ণমালা, অঙ্কসহ প্রাথমিক জ্ঞানবিজ্ঞানের বর্ণিল পৃথিবীকে। শিশুর সুস্থ শারীরিক ও মানসিক বিকাশের দায়িত্ব পরিবার, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এবং রাষ্ট্রসহ আমাদের সকলের, কেননা, বিকশিত শিশু মানেই আলোকিত পৃথিবী।

এ প্রতিপাদ্য নিয়ে আগামী ৬-৭ অক্টোবর, শুক্র-শনি দুই দিন বাংলাদেশ মহিলা সমিতি মিলনায়তনে প্রথমবারের মত অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ফ্রেশ ফুলক্রীম মিল্ক পাউডার নিবেদিত ইনভেন্টর’স পাপেট ফেস্টিভ্যাল ২০১৭। প্রতিদিন বিকাল ৩-৬টা পর্যন্ত চলবে এ উৎসব। ইনভেন্টরস পাপেট, একর কম্যুনিকেশনস, সেভেনথ সেন্স এবং কুল এক্সপোজারের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে দেশের প্রথম এ পাপেট উৎসব।

উৎসবের প্রথম দিন ৬ অক্টোবর, শুক্রবার বিকাল ৩-০০টায় ফ্রেশ- ইনভেন্টর’স পাপেট ফেস্টিভ্যাল-২০১৭ এর উদ্বোধন করবেন মাননীয় সংস্কৃতি মন্ত্রী জনাব আসাদুজ্জামান নূর, এমপি। আয়োজনে অতিথি হিসেবে আরো থাকবেন মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি, বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল, কথা সাহিত্যিক সেলিনা হোসেন, কার্টুনিস্ট আহসান হাবিব, মিডিয়া ব্যক্তিত্ব শারমিন লাকি প্রমুখ।

পাপেট উৎসবে শিশুরাই হবে প্রধান আকর্ষণ, উৎসবে শিশুদের নিয়ে আসার জন্য বিশেষভাবে আহŸানও জানানো হয়েছে। প্রতিদিন দুটি করে পাপেট শো পরিবেশন করা হবে এখানে। উদ্বোধনী দিনে থাকছে পাপেট থিয়েটার রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট সেন্টার অব বাংলাদেশ এবং ঢাকা পাপেট থিয়েটার। শেষ দিনে থাকবে ইনভেন্টরস পাপেট এবং জলপুতুল-এর পরিবেশনা। প্রতিদিন দুটি শো-র বিরতিতে শিশুদের মাঝে আকর্ষণীয় উপহার সামগ্রী বিতরণ করা হবে।

ফ্রেশ- ইনভেন্টরস পাপেট ফেস্টিভ্যাল-২০১৭ শীর্ষক এ আনন্দ আয়োজনের টাইটেল স্পন্সর হিসেবে রয়েছে ফ্রেশ ফুল ক্রিম মিল্ক পাউডার। এছাড়া কো-স্পন্সর হিসেবে থাকছে কুপারস, পোলার, মেঘনা ব্যাংক, এক্স-মনিকা এবং আলিরাজ ম্যাজিক থিয়েটার। উৎসবের টিভি পার্টনার চ্যানেল আই এবং একাত্তর টিভি, রেডিও পার্টনার এবিসি রেডিও।

আয়োজকরা পাপেট উৎসবে বাবা-মা, অভিভাবকসহ শিশুদের সর্বোচ্চ উপস্থিতি আশা করছেন। পাশাাপশি, সমাজের সর্বস্তরের অংশগ্রহণে উৎসবটি এক সৃজনশীল আনন্দমেলা হয়ে উঠবে বলেও আশা করা হচ্ছে।

Print Friendly, PDF & Email

Comments are closed.