khabor.com, KHABOR.COM, khabor, news, bangladesh, shongbad, খবর, সংবাদ, বাংলাদেশ, বার্তা, বাংলা

জমজমাট আয়োজনে নিউইয়র্কে জেমিসি স্টার মিউজিক অ্যাওয়ার্ড-২০১৭ অনুষ্ঠিত

77

নিউইয়র্ক: জমজমাট আয়োজনে নিউইয়র্কে চতুর্থবারের মতো অনুষ্ঠিত হলো জেমিসি অ্যাওয়ার্ড-২০১৭। সিটির জ্যাকসন হাইটসের বেলোজিনো মিলনায়তনে ২৬ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার সন্ধ্যায় এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে সাংস্কৃতিক অঙ্গনে বিশেষ অবদান রাখার জন্য ১১জনকে ‘জেমিনি স্টার মিউজিক অ্যাওয়ার্ড-২০১৭’ এবং দেশ ও প্রবাসের ৯ জন বিশিষ্ট ব্যক্তিকে বিশেষ সম্মাণনা প্রদান করা হয়।

অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথি ছিলেন জাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি রাষ্ট্রদূত মাসুদ বিন মোমেন, নিউইয়র্কে বাংলাদেশের কনসাল জেনারেল শামীম আহসান ও সাবেক স্থায়ী প্রতিনিধি ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের চেয়ারম্যান ড. একে আব্দুল মোমেন। এছাড়াও অতিথি ছিলেন ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি শাবান মাহমুদ, খানস টিউটোরিয়াল-এর চেয়ারপার্সন নাঈমা খান, বাংলাদেশ সোসাইটি ইনক’র সাবেক সভাপতি নার্গিস আহমেদ এবং স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের শিল্পী রথীন্দ্র নাথ রায়, ফকির আলমগীর ও শহীদ হাসান।

বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও সমাজসেবী শাহ নেওয়াজের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মনোজ্ঞ এই অনুষ্ঠানের সার্বিক তত্ত্ববধানে ছিলেন জেমিনি ও বর্তমান বাংলা সম্পাদক বেলাল আহমেদ। অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনায় ছিলেন আশরাফুল হাসান বুলবুল। অনুষ্ঠানে জেমিসি স্টার মিউজিক অ্যাওয়ার্ড- ২০১৭ এর বেস্ট সিঙ্গার অ্যাওয়ার্ডপ্রাপ্তরা হলেন অনুপ বড়–য়া, রানু নেওয়াজ, রোকসানা মির্জা, সোনিয়া সুইটি, মোহাম্মদ খায়রুল ইসলাম, মাহবুবা আলম সোমা, ফারহানা চৌধুরী, তপন কান্তি বৈদ্য, কান্তা আলমগীর, শাহরীন সুলতানা ও প্রিয়া কুমার। অতিথিগণ তাদের হাতে অ্যাওয়ার্ড তুলে দেন।

এছাড়া বিশেষ সম্মাণনা প্রাপ্তরা হলেন- ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি শাবান মাহমুদ, ঢাকার সিনিয়র সাংবাদিক শামীম সিদ্দিকী, নিউইয়র্ক ইন্স্যুরেন্স ইউএসএ’র প্রেসিডেন্ট ও সিইও শাহ নেওয়াজ, সেলিম বিরিয়ানী হাইজ-এর প্রেসিডেন্ট ও সিইও মো: আমজাদ হোসেন সেলিম, হিলমার্ট সুপার স্টোরের প্রেসিডেন্ট ও সিইও আহসান হাবিব, আব্দুল কাদের মিয়া ফাউন্ডেশন ইউএসএ’র প্রতিষ্ঠাতা আব্দুল কাদের মিয়া, ফোমা’র প্রেসিডেন্ট ও সিইও ফাহাদ সোলায়মান, আর্কিট্রেড কন্টাকটিং-এর প্রেসিডেন্ট ও সিইও মইনুল আলম ও লেখক বিদিতা রহমান।

অনুষ্ঠানে দেশ ও প্রবাসের জনপ্রিয় শিল্পীদের মধ্যে রায়ান তাজ, প্রমিতা খান প্রমি, সোমা রহমান, শামীম সিদ্দিকী, লিমন চৌধুরী, চন্দ্রা রায় সঙ্গীত পরিবেশন করেন। বিপুল সংখ্যক দর্শক-শ্রোতা অনুষ্ঠানটি উপভোগ করেন। অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রদূত মাসুদ মিন মোমেন বলেন, প্রবাসে বাঙালী শিল্প-সংস্কৃতির বিকাশে এমন অনুষ্ঠান সংস্কৃতিপ্রেমীদের উৎসাহিত করবে। পাশাপাশি বিদেশের মাটিতে দেশের কৃষ্টি-কালচার আরো বেশী করে তুলে ধরবে।

কনসাল জেনারেল শামীম আহসান তার বক্তব্যে জেমিনি মিউজিক স্টার অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠানের প্রশংসা করে বলেন, এমন অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে ভাল লাগছে। চার বছর আগে আয়োজিত এই অ্যাওয়ার্ড প্রথম শুরু হলে সেখানে যোগ দেয়ার সুযোগ হয়েছিলো। তিনি অনুষ্ঠানের সার্বিক সাফল্য কামনা করেন।

সাবেক রাষ্ট্রদূক একে আব্দুল মোমেন বলেন, নিউইয়র্কের শিল্প-সংস্কৃতির জগতে বাঙালী কৃষ্টি-কালচার বিশেষ স্থান দখল করে নিয়েছে। দিনে দিনে আমেরিকায় বাঙালীর সংখ্যা যেমন বাড়ছে, তেমনি বাঙালী সংস্কৃতিও বিকশিত হচ্ছে। এমন অনুষ্ঠান অয়োজনের মধ্যদিয়ে আমাদের শিল্প-সংস্কৃতিকে আরো তুলে ধরতে হবে।

সাংবাদিক নেতা শাবান মাহমুদ বলেন, প্রবাসে এমন অনুষ্ঠান দেখে আমি অভিভুত, আনন্দিত। জেমিনি মিউজিক স্টার অ্যাওয়ার্ড একটি চমৎকার অনুষ্ঠান। পাশাপাশি আয়োজকদের পক্ষ থেকে আমাকে যেভাবে সম্মানিত করা হয়েছে তাতে ব্যক্তিগতভাবে আমি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। শিল্পী রথীন্দ্র নাথ রায় বলেন, শিল্পরা মূল্যায়িত হলে শিল্প-সংস্কৃতির বিকাশ আরো সহজ হবে। বিশেষ করে প্রবাসের মাটিতে দেশের শিল্প-সংস্কৃতির চর্চা সহজ কাজ নয়।

শিল্পী ফকির আলমগীর বলেন, জেমিনি মিউজিক স্টার অ্যাওয়ার্ড একটি সম্মানজনক অনুষ্ঠান। শিল্পীদের জন্যও অবশ্যই সম্মানের অনুষ্ঠান। তিনি এই অনুষ্ঠানের সার্বিক সাফল্য কামনা করেন। শিল্পী শহীদ হাসান শিল্পীদের সম্মান জানানোর উদ্যোগকে সাধুবাজ জানিয়ে বলেন, আমরা সব সময় ভালো কাজের সাথে আছি, থাকবো। তিনি প্রবাসের শিল্পীদের পৃষ্ঠপোষকতার জন্য কমিউনিটিকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।

সমাজসেবী শাহ নেওয়াজ বলেন, সবার সহযোগিতায় জেমিনি মিউজিক স্টার অ্যাওয়ার্ড আরো এগিয়ে যাবে। এবারের অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠান চমৎকার হয়েছে এবং আগামী দিনে আরো ভালো অনুষ্ঠান হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন। অনুষ্ঠানের আয়োজক বেলাল আহমেদ তার বক্তব্যে সবার সহযোগিতায় অনুষ্ঠানটি সফল হওয়ায় সংশ্লিষ্ট সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন এবং আগামী দিনে আরো সুন্দর অনুষ্ঠান আয়োজনের প্রতিশ্রুতি দেন। তিনি বলেন, আমরা প্রবাসে আমাদের শিল্প-সংস্কৃতি বিকাশের পাশাপাশি শিল্পীদের মূল্যায়ন ও সম্মান জানাতে চাই। এজন্যই চার বছর ধরে জেমিনি মিউজিক স্টার অ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হচ্ছে। -প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

Print Friendly, PDF & Email

Comments are closed.