khabor.com, KHABOR.COM, khabor, news, bangladesh, shongbad, খবর, সংবাদ, বাংলাদেশ, বার্তা, বাংলা

জঙ্গি আস্তানায় মিলল বহুতল ভবন উড়িয়ে দেওয়ার নকশা

0 18

রাজধানীর মিরপুরের দারুস সালামের বর্ধনবাড়ির ‘কমল প্রভা’ জঙ্গি আস্তানা থেকে বহুতল ভবন উড়িয়ে দেওয়ার পরিকল্পনা করা একটি নকশা উদ্ধার করেছে র্যাব। নকশাটি পর্যবেক্ষণ করে র্যাবের পরিচালক (মিডিয়া) কমান্ডার মুফতি মাহমুদ খান বলেন, ‘১৫ তলা ভবনটির নকশায় কোথায় কিভাবে বোমা রাখা হবে-সেটিও নির্দেশ করা হয়েছে। রাজধানীর কোনো ১৫তলা ভবনটিকে ঘিরে এই পরিকল্পনা করা হয়েছে-সেটি আমরা তদন্ত করছি।’

গতকাল ওই বাড়িতে অভিযান চালিয়ে র্যাব আব্দুল্লাহ’র বোমা বানানোর কারখানার সন্ধান পেয়েছে। বাড়ির ছয়তলা ভাড়া নিয়ে আব্দুল্লাহ এই কারখানা স্থাপন করেছেন। সেখান থেকে ১০ কেজি গান পাউডার, কেমিকেল ভরা ৫/৬টি প্লাস্টিকের ড্রাম, প্যাকেট করা ইম্প্রোভাইজড এক্সপ্লোসিভ ডিভাইস (আইইডি) ও বিপুলসংখ্যক দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করে র্যাব।

বাড়ির মালিক টিএন্ডটি’র সাবেক কর্মচারী হাবিবুল্লাহ বাহার আজাদ ও বাড়ির প্রহরী সিরাজুল ইসলামকে গ্রেফতার করে ৫ দিনের রিমান্ড চেয়েছে র্যাব। হাবিবুল্লাহ বাহার আজাদের ছেলে বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের কো-পাইলট (ফার্স্ট অফিসার) সাব্বির আহমেদকে সব ধরনের দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। আস্তানাটিতে ৭ জনের অস্বাভাবিক মৃত্যুর ঘটনায় দারুস সালাম থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

গতকাল সকাল থেকেই র্যাব সদস্যরা ২/৩-বি নম্বর বাড়িতে অভিযান চালান। বাড়ির ছয়তলায় টিনশেডের ৩টি কক্ষে আব্দুল্লাহর বোমা তৈরির কারখানা। সেখান থেকে বিপুল পরিমাণ বিস্ফোরকের পাশাপাশি কাঁচের বোতল দিয়ে তৈরি ১০টি এসিড বোমা উদ্ধার করা হয়।

বিস্ফোরক উদ্ধারের ব্যাপারে র্যাবের পরিচালক বলেন, বুধবার রাতে সাময়িক বিরতি দিয়ে বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৮টা থেকে র?্যাব, ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স এবং বোম ডিসপোজাল ইউনিটের সদস্যরা ভবনে প্রবেশ করে তল্লাশি শুরু করেন। এ সময় কার্টনে রাখা আইইডি ছাড়াও বিভিন্ন ইলেকট্রনিক ডিভাইস পাওয়া গেছে। তবে অভিযান এখনো শেষ হয়নি। আরো সময় লাগবে। ভবনটিতে এখনো প্রচুর আইইডি ও বোমা অবিস্ফোরিত অবস্থায় রয়েছে জানিয়ে মুফতি মাহমুদ বলেন, ‘যেহেতু আব্দুল্লাহ আইপিএস ও ইউপিএস তৈরির ব্যবসা করতেন তাই সেখানে প্রচুর ইলেকট্রিক ডিভাইস রয়েছে। একটি জায়গায় আমরা বেশকিছু ধারাল অস্ত্রও পেয়েছি।’

আস্তানায় ৭ জনের মৃত্যুর ঘটনায় দারুস সালাম থানায় বুধবার রাতে র্যাবের ডেপুটি সহকারী পরিচালক তারেক বাদী হয়ে অস্বাভাবিক মৃত্যুর অভিযোগ এনে একটি মামলা করেছেন। থানার পরিদর্শক (তদন্ত) ফারুকুল আলম বলেন, একটি অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে। এই মামলায় অভিযান শেষে হয়তো মূল মামলা দায়ের করা হবে।

মালিকের ছেলেকে দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি

এদিকে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের কো-পাইলট (ফার্স্ট অফিসার) সাব্বির আহমেদকে সব ধরনের দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। মিরপুর জঙ্গি আস্তানার ভবনের মালিক হাবিবুল্লাহ বাহার আজাদ হলেন পাইলট সাব্বির আহমেদের বাবা। বিমানের সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, বিমানের নিরাপত্তার কথা ভেবে সাব্বির আহমেদকে সাময়িকভাবে দায়িত্ব থেকে বিরত রাখা হয়েছে। বুধবার থেকে তাকে অব্যাহতি দেয়া হয়। র্যাব-৪ এর অধিনায়ক (সিও) লুত্ফুল কবির জানান, বাড়িওয়ালা হাবিবুল্লাহ বাহার আজাদ ও নৈশ প্রহরী সিরাজুল ইসলাম জঙ্গিদের সঙ্গে সরাসরি জড়িত। প্রাথমিকভাবে এর সত্যতা পাওয়া গেছে।

গতকাল হাবিবুল্লাহ বাহার আজাদ ও সিরাজুল ইসলামকে সাভার মডেল থানায় দায়ের করা একটি মামলায় ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করে। র্যাব জানায়, গত ২৮ এপ্রিল সাভারের রাজপুলবাড়িয়ায় একটি বাস থামিয়ে র্যাব ইসলাম ধর্মান্তরিত তামিম দ্বারী ওরফে আব্দুল্লাহ আল হাসান ওরফে আজিজুর রহমান ওরফে আব্দুল্লাহ আল জাফরি ওরফে আমীর হামযা ওরফে আল হুযাইফা ওরফে শ্রী গৌরাঙ্গ কুমার মণ্ডল, কামরুল হাসান ওরফে কাজল ওরফে নূরউদ্দিন ও মোস্তফা মজুমদার ওরফে শিহাব ওরফে হামজাকে গ্রেফতার করে। এ ঘটনায় সাভার মডেল থানায় দায়ের করা মামলায় কমল প্রভা বাড়ির মালিক ও নিরাপত্তা প্রহরীকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে।

সাত মৃতদেহের মধ্যে দুটি শিশুর

বৃহস্পতিবার দুপুরে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতাল মর্গে জঙ্গি আস্তানায় নিহত সাত জনের ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হয়েছে। ময়নাতদন্তকারী চিকিত্সক ডা. সোহেল মাহমুদ জানান, সাতজনেরই মৃত্যু হয়েছে আগুনে পুড়ে। সাতটি মৃতদেহের ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হয়েছে। প্রতিটি শরীর আগুনে পোড়া ছিল। মৃতদেহগুলো পুড়ে একেবারে কয়লা হয়ে গেছে। হাড় ও মাংস ছাড়া কিছুই ছিল না।

মৃতদেহগুলোর বয়স জানতে চাইলে তিনি বলেন, মৃতদেহগুলোর অবস্থা এতো খারাপ ছিল যে বয়স নির্ণয় করা সম্ভব হয়নি। বডিগুলোর অবস্থা এতো খারাপ যে, পুরুষ না নারী তাও শনাক্ত করা যায়নি। শুধু দুটো শিশুর মৃতদেহ আছে যা দেখে আমাদের মনে হয়েছে একটার বয়স ২ থেকে ৩ এবং আরেকটার বয়স ৮ বছর হতে পারে।

নিহত জঙ্গি আবদুল্লাহ, তার স্ত্রী ও সন্তানদের লাশ নেবেন না বলে জানিয়েছেন আবদুল্লাহর পরিবার। দারুস সালাম থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. ফারুকুল আলম বলেন, আবদুল্লাহর ভাই মীর আখলাক খোকার সঙ্গে ফোনে যোগাযোগ করলে তিনি কারও লাশ গ্রহণ করবেন না বলে জানান।

স্থানীয় একটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের মালিক মো. সেলিম জানান, আব্দুল্লাহ ও তার ভাই ইলেকট্রিকের কাজ করতেন। আইপিএস, স্ট্যাবিলাইজারসহ বিভিন্ন পণ্য তৈরি করে তারা স্টেডিয়াম মার্কেটে বিক্রি করতেন। এই ব্যবসা মূলত ছিল তার বড় ভাইয়ের। আব্দুল্লাহ ও তার মেঝো ভাই হাফিজ উদ্দিন সহায়তা করতেন। প্রায় ১০ বছর আগে এই ব্যবসা ছেড়ে সবজির দোকান দেন আব্দুল্লাহ। কিন্তু সেখানে সুবিধা করতে না পেরে আবার ইলেকট্রিকের ব্যবসা শুরু করেন।

বৃহস্পতিবার দুপুরে কমল প্রভার বাড়ির সামনে দাঁড়িয়ে বিলাপ করছিলেন নূরজাহান বেগম নামে এক নারী। নিজেকে আবদুল্লাহ’র কর্মচারী কামালের মা পরিচয় দিয়ে তিনি বলেন, তার পাঁচ সন্তানের মধ্যে কামাল দ্বিতীয়। গত বছরের নভেম্বরে বিয়ে করেছেন তিনি। বউ গ্রামের বাড়িতে থাকেন। আর কামাল হোসেন মিরপুরে আবদুল্লাহ’র বাড়িতে কবুতর দেখাশোনার কাজ করতেন। থাকা-খাওয়া বাদে প্রতি মাসে তাকে ছয় হাজার টাকা বেতন দেওয়া হতো। এবার ঈদে বাড়ি যাননি কামাল। ঈদের পর বাড়ি যাওয়ার কথা ছিল। ঈদের দিন ও ঈদের পরের দিন মায়ের সঙ্গে কথা হয়েছে কামালের।

এ সময় কামালের বাবা আবদুল মালেক বলেন, ‘আমার পোলা কাজ করতে আইস্যা মইরা গেল।’ এরপর কান্নায় ভেঙে পড়েন তিনি। আব্দুল মালেক আরও বলেন, ‘আমার ছেলে জঙ্গি না। সে কাজ করতে ঢাকায় আসছিল। সে নামাজ পড়তো, কিন্তু জঙ্গি না। আব্দুল্লাহ আমার ছেলেকে মেরে ফেলেছে। কামালের বাবা-মার ধারণা, আব্দুল্লাহর বাসায় বিস্ফোরণে তাদের ছেলে মারা গেছে।

জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে ‘কমল প্রভা’ বাড়িটি সোমবার রাত ১২টা থেকে ঘিরে রাখে? র?্যাব। বাড়ির ২৪টি ফ্ল্যাটের মধ্যে ২৩টি ফ্ল্যাটের ৬৫ জন বাসিন্দাকে সরিয়ে নেওয়া হয়। মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৭টা থেকে ৮টার মধ্যে জঙ্গি আব্দুল্লাহ আত্মসমর্পণে রাজি হন। কিন্তু আত্মসমর্পণ না করে রাত পৌনে ১০টার দিকে আত্মঘাতী বিস্ফোরণ ঘটান। এতে আব্দুল্লাহসহ সাতজন মারা যান।

Print Friendly, PDF & Email

Leave A Reply


Hit Counter provided by shuttle service from lax