Share

সৈয়দ এলতেফাত হোসাইন, ঢাকা : দেশের প্রথমসারির সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলো জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবন, চিন্তাধারা, ভাষণ ও রাজনৈতিক কর্মকান্ড এবং আদর্শের উপর ব্যাপক গবেষণার উদ্যোগ নিয়েছে। এ লক্ষ্যে বিভিন্ন সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে ইনস্টিটিউট, ডিপার্টমেন্ট ও চেয়ার প্রতিষ্ঠা করা হবে।জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় বঙ্গবন্ধু ইনস্টিটিউট অব কম্পারেটিভ লিটারেচার এন্ড কালচার নামে একটি ইনস্টিটিউট প্রতিষ্ঠা করেছে। এছাড়া ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয় বঙ্গবন্ধুর নামে চেয়ার এবং চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নামে আইটি পার্ক স্থাপনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

এদিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস ডিপার্টমেন্ট ১৯৯৯ সালে বঙ্গবন্ধু চেয়ার প্রতিষ্ঠা করেছে। চেয়ার প্রতিষ্ঠার সূচনা থেকে ইতিহাস বিভাগ বঙ্গবন্ধুর উপর বিভিন্ন গবেষণা, সেমিনার ও সিম্পোজিয়ামের আয়োজন করছে। জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে জাতির হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ সন্তানের নামে প্রতিষ্ঠিত বঙ্গবন্ধু ইনস্টিটিউট অব কম্পারেটিভ লিটারেচার ও কালচারে চলতি বছরের ২০১৭-২০১৮ একাডেমিক সেশনে ছাত্র ভর্তি করা হবে। এই ইনস্টিটিউটের পরিচালক শামীম রেজা বলেন, এই প্রতিষ্ঠান থেকে সাহিত্য ও সংস্কৃতিতে উচ্চতর ডিগ্রি প্রদান করা হবে। তবে পাঠ্যক্রমে বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশের উপর পূর্ণ ১শ’ নম্বরের কোর্স অন্তর্ভুক্ত থাকবে।

এই ইনস্টিটিউটে একটি আন্তর্জাতিক সাংস্কৃতিক যাদুঘর স্থাপিত হবে। এখানে দেশের মুক্তিযুদ্ধ ও ঐতিহ্য ও সংস্কৃতি প্রদর্শিত হবে। রেজা বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের অনুমোদন পাওয়ার পর শিক্ষক নিয়োগের জন্য পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দেয়া হবে।কুষ্টিয়ায় ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয় বাংলা ডিপার্টমেন্টের আওতায় ‘বঙ্গবন্ধু চেয়ার’ প্রতিষ্ঠার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নামে যে আইটি পার্ক প্রতিষ্ঠার সিদ্ধান্ত নিয়েছে, সে সম্পর্কে বিশ্ববিদ্যালয়টির উপাচার্য প্রফেসর ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী বাসস’কে জানান, ইতোমধ্যেই বঙ্গবন্ধু আইটি পার্কের স্থান নির্ধারণ করা হয়েছে। একনেকের অনুমোদন পেলে এর নির্মাণ কাজ শুরু হবে। তিনি বলেন, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা বা সমাজ বিজ্ঞান অনুষদে বঙ্গবন্ধু চেয়ারও প্রতিষ্ঠা করা হবে। প্রফেসর চৌধুরী আরো জানান, এই বিশ্ববিদ্যালয়ে বঙ্গবন্ধুর উপর নিয়মিত মিটিং, সেমিনার ও সিম্পোজিয়াম অনুষ্ঠিত হচ্ছে এবং বঙ্গবন্ধুর নামে একটি ডিপার্টমেন্টও চালু হবে।চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ২০১৫ সালে ক্যাম্পাসে বঙ্গবন্ধুর প্রথম স্মৃতিফলক উন্মোচন করে। বর্তমানে এখানে বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল সাংস্কৃতিক কর্মকান্ড নিয়মিত অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

Print Friendly, PDF & Email
Share
 
 

0 Comments

You can be the first one to leave a comment.

Leave a Comment

 




 

*

 
 
28Total Views
Share
Share

Hit Counter provided by shuttle service from lax