Share

নয়া দিল্লী : ভারতের রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জী বলেছেন, ফকির লালন শাহ-এর শিল্প কর্ম বিশ্ব ঐতিহ্যের অংশ। লালন শাহ-এর গান হিন্দিতে অনুবাদের মাধ্যমে ভারতের হিন্দিভাষী বিপুলসংখ্যক মানুষ লালনের সঙ্গীতসহ সাহিত্যকর্ম সম্পর্কে যেমন জানতে পারবে, তেমনি এর মাধ্যমে ভারত-বাংলাদেশ বন্ধুত্ব আরো সুদৃঢ় হবে। প্রণব মুখার্জী আজ সন্ধ্যায় দিল্লিতে রাষ্ট্রপতি ভবনে লালন শাহ-এর সঙ্গীতের হিন্দি অনুবাদের মোড়ক উন্মোচন করেন। অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতিকে হিন্দিতে অনুবাদকৃত পুস্তক এবং ডিভিডি-এর প্রথম কপি প্রদান করা হয়। প্রণব মুখার্জী লালন শাহ’কে কবি এবং দার্শনিক হিসাবে আখ্যায়িত করে তার সাহিত্যকর্ম কোনও নিদিষ্ট ভৌগলিক সীমানা, ভাষা এবং ধর্মের মধ্যে আবদ্ধ না রেখে বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন।

অনুষ্ঠানে বক্তব্য দিতে গিয়ে তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেন, লালন শাহ-এর সাহিত্য কর্মে মানবতাবোধকে সর্বাগ্রে স্থান দেয়া হয়েছে। অসাম্প্রদায়িকতা এবং সাম্যের আহ্বান তার সাহিত্যের অন্যতম বিষয়বস্তু। তিনি বলেন, বর্তমানে আমরা সকলে তিনটি বড় হুমকী মোকাবিলা করছি। এগুলো হচ্ছে দারিদ্র্য, সাম্প্রদায়িকতা এবং আনবিক বোম। আমরা লালনের সাহিত্য কর্মের মাধ্যমে এই তিন হুমকীর শান্তিপূর্ণ মোকাবিলা করতে পারি।

তথ্যমন্ত্রী আশা প্রকাশ করেন, লালন সঙ্গীতের হিন্দি অনুবাদের মাধ্যমে উপ-মহাদেশে সন্ত্রাস এবং বৈষম্যমুক্ত একটি নতুন যুগের সূচনা করা সম্ভব হবে।অনুষ্ঠানে অনান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ভারতের সাবেক পররাষ্ট্র সচিব ও বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতের সাবেক রাষ্ট্রদূত প্রফেসর মুকচুন্দ দূবে, যিনি লালনের ১০৫টি সঙ্গীত হিন্দিতে অনুবাদ করেছেন। এছাড়াও বাংলা একাডেমীর সভাপতি অধ্যাপক আনিসুজ্জামান এবং মনোরঞ্জন মহান্তি অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন।

রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জীকে হিন্দি অনুবাদের প্রথম কপি হস্তান্তর করেন সাহিত্য একাডেমী-এর সভাপতি ডঃ বিশ্বণাথ প্রসাদ তেওয়ারী এবং ডিভিডি-এর প্রথম কপি প্রদান করেন আইসিসিআর-এর প্রেসিডেন্ট প্রফেসর লোকেশ চন্দ্র। অনুষ্ঠানে প্রখ্যাত লালন সঙ্গীত শিল্পী ফরিদা পারভীন হিন্দিতে অনুবাদ করা ২টি এবং বাংলায় একটি লালন সঙ্গীত পরিবেশন করেন।

Print Friendly, PDF & Email
Share
 
 

0 Comments

You can be the first one to leave a comment.

Leave a Comment

 




 

*

 
 
166Total Views
Share
Share

Hit Counter provided by shuttle service from lax